এবার টেসলাকে টেক্কা দিবে দৈত্যাকার ট্রাক

ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান টেসলা ২০১৯ সালে বাজারে আনতে যাচ্ছে টেসলা সেমি নামের একটি ইলেকট্রিক ট্রাক। তবে এর আগেই ইটি ওয়ান নামের একটি ইলেকট্রিক ট্রাক বাজারে এনে চমক দেখানোর কথা জানিয়েছে লস অ্যাঞ্জেলেস ভিত্তিক স্টার্টআপ থর ট্রাকস।

১০০ মাইল রেঞ্জের এ ট্রাকটি ৮০ হাজার পাউন্ড বহন ক্ষমতা সম্পন্ন। দামের দিক থেকেও টেসলা সেমি থেকে সস্তা হবে এটি। এর দাম ধরা হয়েছে এক লাখ ৫০ হাজার পাউন্ড। তবে ট্রাকটির ৩০০ মাইল রেঞ্জের একটি আলাদা মডেলও বাজারে আনবে থর। এর জন্য গুনতে হবে বাড়তি এক লাখ ডলার।

টেসলার মতো থরের নিজস্ব উৎপাদন ব্যবস্থা না থাকায় প্রতিটি কম্পোনেন্টের জন্য আলাদা আলাদা প্রতিষ্ঠানের উপর নির্ভর করতে হচ্ছে থরকে। ইটি ওয়ান ইলেকট্রিক ট্রাকে ব্যবহার করা হবে ন্যাভিস্টারের মোডিফাইড চেসিস, ডানার তৈরি অ্যাক্সেল। এছাড়া ট্রাকটির প্রয়োজনীয় ব্যাটারিও তৈরি করবে অন্য একটি প্রতিষ্ঠান।

ইলেকট্রিক ট্রাক

থর দাবি করেছে, প্রতি মাইলে অন্যান্য ট্রাকের তুলনায় ৬০-৭০ শতাংশ সাশ্রয়ী হবে এ ট্রাকটি। এছাড়া পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর, এমন কোনো গ্যাস নিঃসরণ করবে না বিধায় এটি হবে পরিবেশ বান্ধব।

তবে শুধুমাত্র ইলেকট্রিক ট্রাক বাজারে আনার মধ্যেই সীমিত থাকতে চাইছে না থর, অন্যান্য সাধারণ ট্রাককে ইলেকট্রিক ট্রাকে রূপান্তরের পরিকল্পনাও রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির।

বর্তমানে এ প্রতিষ্ঠানে আছে মাত্র ১৮ জন কর্মী। তবে কর্মী বাহিনী বৃদ্ধি করতে কাজ করছে থর। ইতোমধ্যেই ন্যাভিস্টার, ইউএস হাইব্রিডসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে দক্ষ প্রকৌশলীরাও এখানে যোগ দিতে শুরু করেছেন।

ইলেকট্রিক ট্রাক

নিজদের পরিকল্পনা সম্পর্কে প্রতিষ্ঠানের সহ প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী জর্ডানো সরোডনি বলেন: বাণিজ্যিকভাবে ইলেকট্রিক গাড়ি উৎপাদনে অনেক প্রতিষ্ঠানই এখন এগিয়ে আসছে, কারণ এখনই উপযুক্ত সময়। তবে অন্যদের তুলনায় আমি মনে করি আমরা যা বলছি তা বেশ যুক্তিসঙ্গত। আমরা হাজার হাজার চার্জিং স্টেশন কিংবা লাখ লাখ ট্রাক বাজারে আনার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি না, আমরা যা বলছি বাস্তবতার সাথে মিল রেখেই বলছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *